ঢাকা,   মঙ্গলবার ২৩ জুলাই ২০২৪

The South Asian Times | সাউথ এশিয়ান টাইমস

ড্রাগনবোট দিবস এবং একজন কবির প্রতি ভালোবাসা

সাউথ এশিয়ান টাইমস অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৭:৫৬, ১০ জুন ২০২৪

ড্রাগনবোট দিবস এবং একজন কবির প্রতি ভালোবাসা

চীনের মানুষ যে কবি এবং কবিতাকে কত ভালোবাসেন তা বোঝা যায় ড্রাগন বোট ফেস্টিভ্যাল বা তুয়ান উ চিয়ে থেকে। একজন কবির স্মৃতিকে ধারণ করতেই এই উৎসবের সূচনা। খ্রিস্ট পূর্ব ৩০০ শতকের দিকে একটি বিয়োগান্তক ঘটনার স্মরণে এই দিবস। 

সে সময় চীনে বেশ কয়েকটি ছোট ছোট রাজ্য ছিল। সেসময় চীনের সাতটি রাজ্য ছিল ছি, চু, ইয়ান, হান, চাও, ওয়েই এবং ছিন।এদের মধ্যে সবচেয়ে শক্তিশালী ছিল ছিন রাজ্য।

 রাজ্যগুলোর পরষ্পরের মধ্যে যুদ্ধ ও ঝগড়াবিবাদ লেগেই থাকতো। চু রাজ্যের বিখ্যাত কবি ছু ইউয়ান(৩৪০ খ্রিস্টপূর্ব-২৭৮ খ্রিস্টপূর্ব) ছিলেন রাজার বিশ্বস্ত কর্মচারী। 

রাজা ও জন্মভূমির প্রতি তার বিশ্বস্ততা ছিল অবিসংবাদিত। অভিজাত রাজপরিবারের সন্তান ছু ইউয়ান ছিলেন রাজার প্রধান পরামর্শদাতা ও মন্ত্রী। তিনি চু রাজ্যকে শক্তিশালী করে গড়ে তোলার জন্য রাজাকে বিভিন্ন সুপরামর্শ দিতেন। ছু ইউয়ান রাজাকে পরামর্শ দেন ছি রাজ্যের সঙ্গে মিত্রতা স্থাপন করে জোটবদ্ধ হয়ে ছিন রাজ্যের আগ্রাসনের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করার। কিন্তু ছু ইউয়ানের এই পরামর্শ রাজা অগ্রাহ্য করেন। এর পিছনে রয়েছে চিরকালের প্রাসাদ ষড়যন্ত্র। রাজ দরবারে ছু ইউয়ানের প্রতিপত্তিতে ঈর্ষান্বিত অন্য মন্ত্রী ও পারিষদরা তার বিরুদ্ধে রাজার কান ভারি করে। তারা ছিন রাজ্যের সঙ্গে মিত্রতার পরামর্শ দেয়। রাজা তখন ছিন রাজ্যের সঙ্গে আপোষ করেন। কিন্তু ছু ইউয়ান বলেন এটি আত্মঘাতী সিদ্ধান্ত। ছিন রাজ্য সুযোগ বুঝে ছু রাজ্যকে দখল করে নিবে। কিন্তু রাজা এই সুপরামর্শে কান না দিয়ে বরং  ছু ইউয়ানের বিরুদ্ধে ক্ষিপ্ত হয়ে তাকে রাজদ্রোহিতার অভিযোগে অভিযুক্ত করেন এবং তাকে নির্বাসনে পাঠান।নির্বাসনে থাকার সময় ছু দেশপ্রেমমূলক অনেক কবিতা লেখেন যার অনেকগুলো এখনও চীনে বেশ জনপ্রিয়। গ্রামবাসী এই কবিকে ভালোবাসতো। তারা তার কবিতা শুনতো এবং তাকে সমাদর করতো। এদিকে ২৭৮ খ্রিস্টপূর্বাব্দে ছিন রাজ্য চু রাজ্যের উপর হামলা চালিয়ে রাজধানী দখল করে নেয়। নিজের প্রিয় মাতৃভূমির পরাজয়ের সংবাদ যখন কবির কানে পৌঁছালো তিনি সে দুঃখ সইতে পারলেন না। তিনি মিলোও নদীতে ঝাঁপিয়ে পড়ে আত্মহত্যা করলেন। পঞ্চম চান্দ্র মাসের পঞ্চম দিনে এই বিয়োগান্তক ঘটনাটি ঘটে। স্থানীয় লোকেরা যখন তাদের প্রিয় কবির আত্ম বিসর্জনের কথা জানতে পারে তখন তারা নদীতে নৌকা নিয়ে তার মৃতদেহের সন্ধান করতে থাকে। অশুভ আত্মাদের তাড়াতে তারা নৌকার বৈঠা দিয়ে নদীর পানিতে বাড়ি মারে এবং ঢাক পিটিয়ে জোরে জোরে শব্দ করতে থাকে। মাছ যেন কবির মৃতদেহ না খায় এজন্য তারা ভাতের ছোট ছোট পুঁটুলি নদীতে ছুঁড়ে ফেলে।  একজন বৃদ্ধ চিকিৎসক  নদীতে কিছুটা মদিরা ঢালেন যেন অশুভ দানবরা তা পান করে বিষক্রিয়ায় আক্রান্ত হয় এবং ছু ইউয়ান দানবদের গ্রাস থেকে রক্ষা পান। এই ঘটনার স্মরণে এখনও ড্রাগন বোট উৎসব  পালন করা হয়।

 মধ্য চীনের হুনান প্রদেশে ছাংশা শহরের ৫০ কিলোমিটার উত্তরে মিলোও নদীতে এখনও নৌকা ভাসানো হয়। কালক্রমে এটি নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতায় রূপ নিয়েছে। এসব রীতি রেওয়াজের মধ্য দিয়ে স্মরণ করা হয় দেশপ্রেমিক কবি ছু ইউয়ানকে।

সর্বশেষ

Advertisement

সর্বাধিক জনপ্রিয়